সারোয়ার তুষার লেখক, গবেষক। তাঁর আগ্রহের বিষয় রাষ্ট্র, ক্ষমতা, ইতিহাস, দর্শন, বিউপনিবেশায়ন ও গ্রহীয় বিজ্ঞান। প্রকাশিতব্য গ্রন্থ কোয়ারেন্টাইন স্টেট।

Afsan Chowdhury is a researcher, professor and media worker. He has been working on the history of Bangladesh Liberation war for a long time. He has received Bangla Academy award for his contribution in this field. He has also written short stories in three languages. His publications include Bangladesh 1971 (2007); edited GramerEkattor (2019).

Amar Mitra is a storywriter and novelist. He first drew readers’ attention in 1974 by publishing the short story ‘Melar Dike Ghar’ in the periodical Ekal. He’s relentless in publishing novels and short stories and some of his literary works have made into theatrical productions. He has received numerous government and institutional awards including Sahitya Akademi, Bankim, Samaresh Basu and Jugsankha for his literary works.His publications include collection of stories Math Bhange Kaalpurush (1978); novel Momenshahi Upakhyan(2019).

Aminur Rahim is a former professor of Development and Policy Studies, University of Fort Hare, South Africa. His scholarly papers on society and politics have appeared in various international journals. His publications include Politics and National Formation in Bangladesh (1997).

Amiya Kumar Bagchi is an economist and essayist. He is a recipient of Indian Government’s Padmasri and various other national and international awards. He has authored several internationally acclaimed books on world economy. His publications include Private Investment in India 1900-1939 (1972); Colonialism and Indian Economy (2010).

Arnab Saha is a writer. He’s a teacher by profession. His publications include Pornotopia (2008); recent publication Bangalir Jaunocharcha: Bottala theke Holud Boi.

Chirantan Sarkar is a Professor of English at Asannagar Madan Mohan Tarkalankar College, Pashchim Banga.He’s been consistently writing on sexuality and embodiment in both English and Bangla. His publications include a collection of Bangla essays Pornotopia (2008); Postcolonialism: An Introduction (2010).

Daniel Kent-Carrasco is a historian. He specializes in the intellectual and political history of South Asia, Mexico and the Third World. He’s currently a postdoctoral fellow at the Institute of Historical Research, UNAM, in Mexico City. He has published a number of papers on the history of socialism in India and Mexico.

Epsita Halder is a Professor of Comparative Literature at Jadavpur University in Kolkata. Her research focuses on the formulations of the battle of Karbala and identity search of the Bangali Muslims in nineteenth-twentieth centuries and of the Shia community in West Bengal.

Farooque Chowdhury is a writer.His articles and books cover wide areas. His writings on the Liberation war of Bangladesh, geopolitics, rural development, environment and imperialism have appeared in domestic and foreign publications. His publications include With the Passing Time(2021); coming out soon The Great October Revolution.

Janam Mukherjee is a Professor of History at Ryerson University, Canada. He’s also known as an anti-war activist and a creative writer. His published research book is Hungry Bengal: War, Famine, Riots and the end of Empire (2015).

জোসে ম্যাপ্রিল নিউ ইউনিভার্সিটি অব লিসবন-এ নৃতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্রের জ্যেষ্ঠ গবেষক। তাঁর প্রকাশিত গবেষণাপত্রের মধ্যে রয়েছে টসিক, মণিকা প্রমুখ সম্পাদিত কন্টেস্টেড হিস্ট্রিজ অন দ্য মুভ-এ অন্তর্ভুক্ত আ পাস্ট দ্যাট স্টিল হার্টস, দ্য ডিস্টেন্স ন্যাশানালিজম, প্লেইস অ্যান্ড মেমেরো-পলিটিক্স বিটুইন বাংলাদেশ অ্যান্ড পর্তুগাল। সাউথ এশিয়া মাল্টিডিসিপ্লিনারি একাডেমিক জার্নাল-এ ইমাজিনিং বাংলাদেশ : কন্টেস্টেড ন্যারেটিভস্।

Kaushalya Bannerji is a poet and blogger. In addition to receiving higher degree in Law she has been involved in social activism. Her publications include books of poetry A new Remembrance (1993); The faces of Five O’clock (1996).

Mihir Bhattacharya taught English Literature and Film Studies at Jadavpur University and was a visiting faculty at various educational institutions in Australia, Bangladesh, France and India. He has published numerous scholarly papers in Bangla and English. He has also directed documentaries and play

Nandini Bhattacharya teaches History at a college in Kolkata. Her twin research interests revolves around Soviet Socialist experimentation in Central Asia and Bangla’s partition and its impact on socio-politico-cultural scene. Her publications include East Bengal: A Lost Land of Immortal Memories (2017).

Pabitra Sarkar is ex-Vice Chancellor of Rabindra-Bharati University, India. He’s renowned as an expert of Bangla language, grammar and spelling in Bangladesh and Poshchim Banga. His publications include Bangla Banan Samskar: Samasya O Sambhabana (1987); Chomsky, Byakaran O Bangla Banan(2013).

Partha Pramanik is currently a post-graduate research student in the Department of History at Kolkata University. This article is a result of his research work about the relief program during the famine of 1943.

Rituparna Chakraborty is pursuing her MPhil in comparative literature at Rabindra Bharati University.

Sampriti Mukherjee is a postgraduate student of Women's Studies at Jadavpur University. She's also involved in the current social movments as an active member of a Left Political Party.

Sarah Nafisa Shahid is a freelance writer. She wrote about film, visual culture, and politics for the Star Weekend, a publication of The Daily Star in Dhaka. Her writings have also appeared in the Hyperallergic and Wear Your Voice magazines.

Shobhanlal Datta Gupta was formerly the Surendranath Banerjee Professor of Political Science at the University of Kolkata. He’s a distinguished scholar of Marxism in India. His publications include The State of Political Theory: Some Marxist Essays (1977); The Socialist Vision and the Silenced Voices of Democracy. New Perspectives: Part I: Rosa Luxemburg (2015).

Subho Basu is a Professor of history at McGill University, Canada. He has published numerous articles in the Modern Asian Studies, Critical Asian Studies and other academic journals. His publications include Does Class Matter? Colonial Capital and Workers’ Resistance in Bengal (1890-1937)(2004).

Suchetana Chattopadhyay is the Professor of History and coordinator of the Centre for Marxian studies at Jadavpur University. Her area of research is in the history of communism and city. Her publications include An Early Communist: Muzaffar Ahmad in Calcutta 1913-1929 (2011).

Sumanta Banerjee is a researcher in the social history of nineteenth century Bengal and writes on current politics in journals in India and abroad. His publications include In the Wake of Naxalbari (1980); Memoirs of Roads: Calcutta from colonial urbanization to global modernization (2016).

is a Métis historian and activist. He received graduate degree in history from the University of Victoria, British Columbia. As a Leftist activist Tyson is involved in anti-imperial and anti-colonial movements and has published articles on these issues in the Toronto publication called Rebel Youth.

V. Ramaswamy lives in Kolkata. He has been engaged in translating works of Subimal Misra for a long time. He was a recipient of the Literature Across Frontiers fellowship in 2016. His publications include The Golden Gandhi Statue from America ( 2010) ; Wild Animals Prohibited (2015).

অমর মিত্র গল্পকার, ঔপন্যাসিক। ১৯৭৪ সালে একাল পত্রিকায় ‘মেলার দিকে ঘর’ গল্প লিখে পাঠক মহলে সাড়া জাগান। তারপর থেকে দীর্ঘ চার দশক ধরে তিনি গল্প-উপন্যাস রচনা করে যাচ্ছেন। তার বিভিন্ন আখ্যান নিয়ে নাটক মঞ্চস্থ হয়েছে। গল্প-উপন্যাসের জন্য সাহিত্য অকাদেমি, বঙ্কিম, সমরেশ বসু, যুগশঙ্খসহ ভারত ও পশ্চিমবঙ্গের একাধিক সরকারি ও প্রাতিষ্ঠানিক পুরস্কার পেয়েছেন। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে গল্পগ্রন্থ মাঠ ভাঙে কালপুরুষ (১৯৭৮); উপন্যাস মোমেনশাহী উপাখ্যান (২০১৯)।

অরুণ সোম লেখক, অনুবাদক। সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রগতি ও রাদুগা প্রকাশনায় দীর্ঘ সময়কাল ধরে অনুবাদক হিসেবে যুক্ত ছিলেন। মূল রুশ থেকে বাংলাভাষীদের জন্য শিশু, কিশোর এবং চিরায়ত সাহিত্যের তুর্গেনিয়েভ, গোগল, তলস্তোয়, দাস্তাইয়েফ্‌স্কি প্রমুখ দিকপালের বই অনুবাদ করেছেন। দাস্তাইয়েফ্‌স্কির অপরাধ ও শাস্তি অনুবাদের জন্যে পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমি পুরস্কার পেয়েছেন।

অরুণাভ ঘোষ পশ্চিমবঙ্গের একটি কলেজে ইংরেজি ভাষার সহকারী অধ্যাপক। বিগত কয়েক বছর ধরে তিনি বিংশ শতকের শেষ ভাগের মার্কিন সাহিত্য নিয়ে গবেষণারত। তাঁর বাংলা ও ইংরেজি প্রবন্ধ নানা পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।

অর্ণব সাহা লেখক। পেশা অধ্যাপনা। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে পর্নোটোপিয়া (২০০৮); সাম্প্রতিক প্রকাশনা বাঙালির যৌনচর্চা: বটতলা থেকে হলুদ বই।

অলোক গোস্বামী গল্পকার। গল্পের জন্য বাংলা আকাদেমি এবং পশ্চিমবঙ্গের তথ্য সংস্কৃতি দপ্তর কর্তৃক সোমেন চন্দ পুরস্কারে ভূষিত। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে গল্পগ্রন্থ আগুনের স্বাদ (২০০৫); মেমরি লোকাল (২০২০)।

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায় কবি, অনুবাদক। লেখালেখি বাংলা এবং ইংরেজি দুই ভাষাতেই। একাধিক দেশে অনুষ্ঠিত কবিতা বিষয়ক বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সম্মিলনে অংশ নিয়েছেন। অনুবাদ করেছেন সার্বিয়ার কবি রোমান কিসিয়ভ এবং সাঁওতাল কবি পরিমল হেমব্রমের কবিতা। প্রকাশিত একাধিক কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বী সাতজন (১৯৮৪); সবুজের সংসার (২০২০)।

আনসারউদ্দিন পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার একজন প্রান্তিক চাষি। নিজের যাপিত জীবন নিয়ে লিখিত গল্পের প্রকাশ হতে থাকে গত শতকের ৯০ দশক থেকে। নানা সাহিত্য পুরস্কারে সম্মানিত। প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে আনসারউদ্দিনের গল্প (১৯৯৪), প্রামজীবনের সাতকাহন (২০১৮)।

আনু মুহাম্মদ অর্থনীতির অধ্যাপক, প্রাবন্ধিক। রাষ্ট্র, অর্থনীতি, সংস্কৃতি ও সামাজিক আন্দোলন বিষয়ে তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে; বিশ্বায়নের বৈপরীত্য (২০০৩); সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধ (২০১৭)।

আফসান চৌধুরী গণমাধ্যম কর্মী, গবেষক, অধ্যাপক। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস গবেষণায় নিয়োজিত। তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কারে ভূষিত। ইতিহাস চর্চার পাশাপাশি তিনি একাধিক ভাষায় গল্পও লিখেছেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ ১৯৭১ (২০০৭); (সম্পাদনা) গ্রামের একাত্তর (২0১৯)।

আবুল মনসুর বাংলাদেশের অগ্রগণ্য শিল্প সমালোচক। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের সাবেক অধ্যাপক। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে জয়নুল আবেদিন (২০১৩), শিল্পকথা শিল্পীকথা (২০১৬)।

আমিনা খাতুন আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ে আধুনিক ভারতীয় ভাষা বিভাগের অধ্যাপক। বাংলা ও হিন্দিতে কবিতা ও কাহিনির রচয়িতা। তাঁর গবেষণার বিষয় মহিলাদের রচনা ও নারীবাদ।

আমিনুর রহিম দক্ষিণ আফ্রিকার ইউনিভার্সিটি অব ফোর্ট হেয়ারের উন্নয়ন ও নীতি অধ্যয়ন বিভাগের সাবেক অধ্যাপক। সমাজ ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান সংক্রান্ত তাঁর একাধিক গবেষণাপত্র নানা আন্তর্জাতিক বিদ্যাচর্চামূলক প্রকাশনায় বেরিয়েছে। তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে পলিটিক্স অ্যান্ড ন্যাশনাল ফরমেশন ইন বাংলাদেশ (১৯৯৭)।

আরিফ রেজা মাহমুদ পেশায় সাংবাদিক। শিক্ষাজীবনের সক্রিয় ছিলেন বামপন্থি ছাত্র রাজনীতির সঙ্গে। বর্তমানে নজরদারি বিষয়ে গবেষণা করা ছাড়াও যৌথভাবে সম্পাদনা করছেন অরাজবাদ বিষয়ে চিন্তা-চৰ্চার ওয়েবজিন ‘অরাজ'।

আশান উজ জামান পেশায় অধ্যাপক। বর্তমানে পড়াচ্ছেন রংপুরের রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাঁর প্রথম প্রকাশিত উপন্যাস অন্যচোখে (২০১৮)।

ইউসুফ হিরণ গল্পকার। পেশায় সরকারি চাকুরে। আন্তর্জাল এবং মুদ্রিত সাহিত্য সাময়িকীগুলোতে লিখে থাকেন। তাঁর প্রকাশিত গল্পের বই অনাহূত (২০১৯)।

ইচ্ছে ডানা কবি, ও চিত্রশিল্পী। কবিতা লিখছেন দীর্ঘদিন ধরে। পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের বিভিন্ন সাহিত্য পত্রিকায় তাঁর কবিতা প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ অ্যান্টিক হওয়া ঘড়ি (২০১৮)

ইফাত রেজোয়ানা রিয়া শিল্পী। চারুকলায় স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে লেখাপড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও চীনের ইউনান আর্টস ইউনিভার্সিটিতে। বহুমুখী শিল্পচর্চা তাঁকে তাঁর নিজের অভিজ্ঞতা, স্থান এবং ইতিহাসের দিক থেকে আধুনিকতা এবং উত্তর আধুনিকতার স্থানীয় এবং বৈশ্বিক প্রেক্ষাপট অন্বেষণে অনুপ্রাণিত করে। তিনি একাধিক দলীয় প্রদর্শনী, কর্মশালা, স্থান-নির্দিষ্ট শিল্প-প্রদর্শনী এবং সামাজিক কল্যাণমূলক ও মানব গবেষণা প্রকল্পে অংশ নিয়েছেন।

ইস্ক্রা রহমান পেশায় শিক্ষক ও অনুবাদক। বর্তমানে শিক্ষকতা করছেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে। স্বরব্যাঞ্জো নামক একটি গানের দলের সঙ্গেও তিনি যুক্ত।

কাজল বন্দ্যোপাধ্যায় কবি, প্রাবন্ধিক, অনুবাদক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগে অধ্যাপনা করছেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে কাব্যগ্রন্থ কাঙাল দীর্ঘকাল (১৯৮৫); প্রবন্ধ গ্রন্থ টেনশন অ্যান্ড সিনথেসিস ইন ওঅলে সয়িঙ্কাস প্লেএস্‌ (২০১২)।

কাবেরী গায়েন সমাজবিজ্ঞান গবেষক, লেখক এবং মানবাধিকার কর্মী। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্রে নারী-নির্মাণ (২০১৩), ভালনারেবল এমপ্লয়মেন্ট : ক্যাপাবিলিটিস অ্যান্ড ভালনারাবিলিটিস অব উইমেন্ট গার্মেন্ট ওয়ার্কারস অব বাংলাদেশ (২০১৬)।

কামিল শেদচিস্কি পোলিশ শিক্ষার্থী। বাংলা চর্চার সঙ্গে প্রায় সাত বছর ধরে যুক্ত। ভার্‌ষাভা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভারতবিদ্যায় স্নাতক হওয়ার পর বর্তমানে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনামূলক সাহিত্য বিভাগে স্নাতকোত্তর পর্বে পড়ালেখা করছেন। পোলিশ ভাষা থেকে বাংলায় অনূদিত তাঁর প্রকাশিত রচনার মধ্যে রয়েছে বলেশ্লাভ লেশিয়ানের গল্প ইয়ান প্রহেলিক (২0১৯, একলব্য); আধুনিক পোলিশ কবিতার দশানন (২0১৯, অনুষ্টুপ, শারদীয় সংখ্যা)।

কৌশল্যা বন্দ্যোপাধ্যায় কবি, ব্লগার। আইন শাস্ত্রে উচ্চতর ডিগ্রি নেওয়ার পাশাপাশি সামাজিক সক্রিয়তাবাদের সঙ্গে জড়িত। প্রকাশিত একাধিক কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে আ নিউ রিমেমব্রেন্স (১৯৯৩); দ্য ফেইসেস অব ফাইভ ও ক্লক (১৯৯৬)।

খোইরোম রুধির নিয়মিত ব্লগ ও লিটল-ম্যাগাজিনে লেখালেখি করেন। সমাজ, রাষ্ট্র ও মানুষের মধ্যেকার সম্পর্কের ওপর তাঁর নিবিড় পর্যবেক্ষণ।

চণ্ডীদাস ভট্টাচার্য্য প্রাবন্ধিক, সক্রিয় সাংস্কৃতিক কর্মী। পশ্চিমবঙ্গের প্রগতিশীল সামাজিক-সাংস্কৃতিক গণ আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক। পথিকৃৎসহ বিভিন্ন পত্রপত্রিকার সঙ্গে যুক্ত।

জগলুল আসাদ পেশায় শিক্ষক। সাহিত্য, ভাষাতত্ত্ব, ইতিহাস, দর্শন, ধর্মতত্ত্ব, শিক্ষা ইত্যাদি বিষয়ে নিয়মিত লিখে থাকেন।

জয়দীপ দে গল্পকার। পেশা শিক্ষকতা। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে গল্পগ্রন্থ হারকিউলিসের পাখা (২০১৩); উপন্যাস নিযুপ্ত (২০১৮)।

জয়াশিস ঘোষ লেখক। পেশায় সরকারি আধিকারিক। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে বৃষ্টি আসার আগে (২০১৫); গল্পগ্রন্থ বৃষ্টি বারোমাস (২০১৯)।

টাইসন রিয়েল স্ট্র্যান্ডলুন্ড ইতিহাসবিদ এবং সক্রিয়তাবাদী। কানাডার আদিবাসী মেটি বংশোদ্ভূত টাইসন ইতিহাসে স্নাতকোত্তর। বামপন্থি সক্রিয়তাবাদী হিসেবে সাম্রাজ্যবাদ ও ঔপনিবেশিকতা বিরোধী আন্দোলন নিয়ে কাজ করছেন এবং টরন্টো থেকে প্রকাশিত রেবেল ইয়ুথ পত্রিকায় একাধিক রচনা প্রকাশ করেছেন।

তন্ময় মালাকার বারাসাতে পশ্চিমবঙ্গ সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর পর্বের শিক্ষার্থী। পাশাপাশি উত্তর ২৪ পরগনার গোবরডাঙা হিন্দু কলেজে অতিথি প্রভাষকের কাজও করছেন।

তরুণ চক্রবর্তী কবি, লেখক। বর্তমানে রাশিয়ার সাইবেরিয়ান ফেডারেল ইউনিভার্সিটিতে অর্থনীতির অতিথি অধ্যাপক (ভিজিটিং প্রফেসর)। তিনি সাউথ এশিয়া জর্নাল সাময়িকীর সম্পাদনা পর্ষদের সঙ্গে যুক্ত। প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে কাব্যগ্রন্থ আমি কোথাও নেই (২০০৩); প্রবন্ধগ্রন্থ মস্তিষ্ক থেকে মননে (২০০৬)।

তুষার গায়েন কবি, প্রাবন্ধিক। যৌথভাবে সম্পাদনা করেছেন অধুনান্তিক বাংলা কবিতার ইংরেজি অনুবাদ সংকলন পোস্টমডার্ন বাংলা পোয়েট্রি, টু থাউজেন্ড থ্রি। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে কাব্যগ্রন্থ নীলভবহ্রদ (১৯৯৭); দ্বিমেরুযোজন (২০১২)।

তুষার চক্রবর্তী বিজ্ঞান বিষয়ক লেখক। বর্তমানে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব কেমিক্যাল বায়োলজি, কলকাতায় জিন-বিজ্ঞানী হিসেবে কর্মরত। প্রকাশিত গ্রন্থ জিন: ভাবনা, দুর্ভাবনা (২০০৯)।

তৌকির হুসেন লেখক ও অনুবাদক। ক্ষমতা, রাষ্ট্র, নারীবাদ এবং পোস্ট-অ্যানার্কি বিষয়ে আগ্রহী। বর্তমানে অনুবাদ করছেন সল নিউম্যানের ফ্রম বাকুনিন টু লাঁকা।

নন্দিনী ভট্টাচার্য কলকাতার একটি মহাবিদ্যালয়ে ইতিহাসের অধ্যাপক। তাঁর চর্চার বিষয় মধ্য এশিয়ায় সোভিয়েত সমাজতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থার পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং বাংলার দেশভাগজনিত সামাজিক-রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক অভিব্যক্তি। প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ইস্টবেঙ্গল: আ লস্ট ল্যান্ড অব ইমমরটাল মেমরিজ (২০১৭)।

নিকোলাস গ্যিয়েন (১৯০২-১৯৮৯) : ক্যুবার বিশ্বনন্দিত কবিদের অন্যতম। আফ্রো-ইউরোপীয় বংশোদ্ভূত গিয়্যেন সাংবাদিক, সক্রিয় রাজনৈতিক কর্মী এবং ক্যুবার জাতীয় লেখক ইউনিয়নের নেতা হিসেবেও সমাদৃত। লেনিন পুরস্কারসহ নানা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ভূষিত।

নীরব ক কলকাতার একটি মহাবিদ্যালয়ে অর্থশাস্ত্রের অধ্যাপক। প্রকাশিত কাব্যোপন্যাস নিশু পিপে কাহিনি (২০১৬)।

পাই খাই ইউয়ান সাংবাদিক অনুবাদক। তিনি দীর্ঘদিন চীন আন্তর্জাতিক বেতারে জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক হিসেবে কাজ করার পর বর্তমানে অবসরে আছেন। চীনা ভাষায় রবীন্দ্রনাথের রচনাবলি অনুবাদের অন্যতম অনুবাদক। বাংলা ভাষা চর্চা করছেন অর্ধ শতাব্দীরও বেশি সময় ধরে। তিনি নজরুল, জসীমউদ্দীন এবং শামসুর রাহমানের লেখাও অনুবাদ করেছেন।

পারভেজ আলম লেখক ও রাজনৈতিক চিন্তক। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে মুসলিম জগতের জ্ঞানতাত্ত্বিক লড়াই (২০১১), ডিজঅ্যাপিয়ারিং পাবলিক স্ফিয়ার্স (২০১৬)।

পিয়ালী সাধুখান শিল্পী। বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০০৬ সালে চারুকলায় স্নাতকোত্তর পর্ব শেষ করার পরপরই ভারত সরকারের জুনিয়র রিসার্চ ফেলোশিপ পান। নিত্যদিনের ব্যবহার্য রসদ ও বস্তুসম্ভারের পরতে পরতে যে অর্থ, অভিজ্ঞতা আর স্মৃতি মিশে থাকে তাকে নিয়েই পিয়ালীর অনুধ্যান। নাট্যকলার সঙ্গেও তিনি দীর্ঘদিন থেকে জড়িত থেকে সিনোগ্রাফার ও মঞ্চ পরিকল্পনার কাজ করে যাচ্ছেন। স্থাপনাসহ তার নানা ধরনের শিল্প প্রকল্পের একক এবং যৌথ প্রদর্শনী জাপান, সুইজারল্যান্ডসহ ভারতের বিভিন্ন শহরে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ফরিদা জামান শিল্পী। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ড্রয়িং ও পেইন্টিং বিভাগের অধ্যাপক। শিক্ষাদীক্ষা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ, ভারতের বরোদা ও শান্তিনিকেতনের বিশ্বভারতীতে। দেশে ও বিদেশে তাঁর শিল্পকর্মের অসংখ্য একক ও যৌথ প্রদর্শনী হয়েছে। ২০০৮ সালে বেইজিং অলিম্পিকে সেরা শিল্পী হিসেবে স্বর্ণপদকসহ নানা পুরস্কারে ভূষিতা। বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত তাঁর গ্রন্থ আধুনিক চিত্রকলায় লোকশিল্পকলার প্রভাব (১৯৯৮)।

ফারুক চৌধুরী লেখক। তাঁর লেখাপ্রবন্ধ-নিবন্ধ, বইপত্র নানা বিষয়ে। বিশেষ করে, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, বিশ্ব ভূ-রাজনীতি, পল্লি উন্নয়ন, পরিবেশ, ক্ষুদ্রঋণ, সাম্রাজ্যবাদ ইত্যাদি বিষয়ে তাঁর লেখা দেশে ও বিদেশে প্রকাশিত। প্রকাশিত গ্রন্থের ইংরেজিতে রচিত উইথ দ্য পাসিং টাইম ( ২০২১); প্রকাশিতব্য দ্য গ্রেট অক্টোবর রেভলুশন।

বিরঞ্জন রায় মনোরোগ চিকিৎসক ও লেখক। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে। চেতনার বিজ্ঞান, সামাজিক চেতনার মনস্তত্ত্ব (২০১০); ফ্রয়েডবাদ : দ্বান্দ্বিক বস্তুবাদের আলোকে (২০১৫)।

বিশ্বরূপ সান্যাল সোভিয়েত ইউনিয়নে পদার্থবিদ্যা ও গণিতে স্নাতক হওয়ার পর থেকেই ১৯৮১ সাল থেকে মস্কোনিবাসী। বিগত দশ বছর ধরে ইতিহাস নিয়ে চর্চা করছেন। আধুনিক যুগের ইতিহাস ও সাম্প্রতিক বিশ্বের ঘটনাবলি নিয়ে তাঁর আগ্রহ ও পড়াশোনা।

ভাস্বতী রায় সেন্টার ফর স্টাডিজ ইন সোশ্যাল সায়েন্সেস, ক্যালকাতা থেকে সম্প্রতি স্নাতকোত্তর পর্বের পড়ালেখা শেষ করেছেন। রাজবংশী সমাজ, সংস্কৃতি ও সাহিত্য বিষয়ে গবেষণায় আগ্রহী।

ভি. রামস্বামী কলকাতাবাসী। দীর্ঘদিন ধরে সুবিমল মিশ্র’র রচনার অনুবাদ কাজে নিয়োজিত। ২০১৬-তে লিটারেচার অ্যাক্রস ফ্রন্টিয়ার্স ফেলোশিপ পেয়েছিলেন। তাঁর প্রকাশিত অনুবাদ গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে দ্য গোল্ডেন গান্ধী স্ট্যাচু ফ্রম অ্যামেরিকা (২০১০); ওয়াইল্ড অ্যানিমলস্ প্রোহিবিটেড (২০১৫)।

মণিদীপা সান্যাল কবি। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে দর্শনের অধ্যাপক। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে কাব্যগ্রন্থ ব্ৰহ্মকমল (১৯৯২); দর্শন সংক্রান্ত দ্য ওয়েব অব বিলিফ (২০০৬)।

মনোরঞ্জন ব্যাপারী গল্পকার, ঔপন্যাসিক। বাংলা দলিত সাহিত্যের পুরোধা লেখক। সাহিত্যকর্মের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার পেয়েছেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে গল্প সংকলন বৃত্তের শেষ পর্ব (২০০০); আত্মজীবনী ইতিবৃত্তে চণ্ডাল জীবন (২০১২)।

মশিউল আলম পেশায় সাংবাদিক। গল্পকার, ঔপন্যাসিক। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে গল্প সংকলন রুপালী রুই ও অন্যান্য গল্প (১৯৯৪); উপন্যাস যেভাবে নাই হয়ে গেলাম (২০১৫)।

মাজহার সরকার কবি। গল্প এবং উপন্যাসও লিখেছেন। কাব্যগ্রন্থ সোনালী রোদের সাঁকো এবং প্রথম উপন্যাস রাজনীতি-র জন্য সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন।

মানবেন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায় কবি, অনুবাদক, প্রাবন্ধিক। বাংলা জনালের সম্পাদনা পরিষদের সদস্য; যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনামূলক সাহিত্য বিভাগের প্রাক্তন প্রধান ও অধ্যাপক। অনুবাদ কর্মের জন্য সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার পেয়েছেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে বাঁচাকাহিনী (১৯৭৬); আত্মহত্যার অধিকার এবং অন্যান্য সনদ (২০১২)।

মানস ঘোষ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের চলচ্চিত্রবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক। বিভিন্ন জর্নাল ও চলচ্চিত্র পত্রিকায় চলচ্চিত্র বিষয়ে বাংলা ও ইংরেজিতে নিয়মিত লিখে থাকেন। বর্তমানে তাইপে-র সেন্টার ফর চায়নিজ স্টাডিস-এ পোস্ট ডক্টরাল গবেষণার পাশাপাশি ঋত্বিক ঘটকের চলচিত্র নিয়ে ইংরেজিতে প্রকাশিতব্য একটি সংকলনের সম্পাদনা করছেন।

মামুন হুসাইন পেশায় মনোচিকিৎসক। গল্পকার, ঔপন্যাসিক এবং প্রাবন্ধিক। সাহিত্য কর্মের জন্য আখতারুজ্জামান ইলিয়াস পুরস্কারে ভূষিত । তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে গল্প সংকলন শান্ত সন্ত্রাসের চাঁদমারি (১৯৯৫) প্রবন্ধ সংকলন গল্পদেখার চিহ্ন (২০১৬)

মিহির ভট্টাচার্য চলচ্চিত্র ও ইংরেজি সাহিত্য পড়িয়েছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে। অতিথি অধ্যাপক হিসেবে ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া এবং বাংলাদেশ ও ভারতের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়িয়েছেন। বাংলা ও ইংরেজিতে প্রচুর পাণ্ডিত্যপূর্ণ নিবন্ধ প্রকাশের পাশাপাশি তিনি তিনটি প্রামাণ্য চলচ্চিত্র ও একাধিক নাটকের রচয়িতা।

মুন রহমান স্বশিক্ষিত শিল্পী। প্রথাগত ঘরকন্না ও সন্তান লালন-পালনের ফাঁকে ফাঁকে ছবি তৈরির ঘাের। ২০১৩ সালে বন্ধু-পরিজনদের সুবাদে সামাজিক গণমাধ্যমে পরিচিত হন। তিনি ২০১৪-১৫-এর কিবরিয়া প্রিন্ট ফেয়ার-এ অংশ নিয়েছিলেন। ২০১৭ সালে তাঁর কাজের একক প্রদর্শনী হয়েছে ঢাকা কলাকেন্দ্র’-তে।

মুহাম্মদ গোলাম সারওয়ার ব্লগার ও অনুবাদক। বর্তমানে সুইডেনে চিকিৎসা বিজ্ঞানের গবেষণা কাজে যুক্ত। সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে তাঁর অনুবাদ নোয়াম চমস্কির হিরোশিমা থেকে ড্রোনযুদ্ধ (পশ্চিম সন্ত্রাসবাদ প্রসঙ্গে); ২০১৯।

মোস্তফা হামেদী কবি। শিক্ষকতা পেশায় যুক্ত আছেন। তাঁর প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে মেঘ ও ভবঘুরে খরগোশ (২০১৫), জড়োয়া (২০১৯)।

যতীন সরকার প্রাবন্ধিক। গবেষণা ও মননশীল প্রবন্ধ রচনার জন্যে বাংলা একাডেমি পুরস্কার পেয়েছেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশের কবিগান (১৯৮৫), সাঁকো বাঁধার প্রত্যয় (২০১৫)।

যশোধরা রায়চৌধুরী কবি, গল্পকার। প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে কৃত্তিবাস পুরস্কারপ্রাপ্ত কাব্যগ্রন্থ পণ্য সংহিতা (১৯৯৮), গল্পগ্রন্থ সলিটেয়ার (২০১৩)।

রঙিলী বিশ্বাস পেশায় অর্থনীতির অধ্যাপক/গবেষক। বাকি সময়টাতে লেখা আর গানে নিয়োজিত। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে হেপাজতে নিখোঁজ জাহাঙ্গীর (২০০৫); গণশুনানির পরে (২০১৬)।

রণদীপম বসু লেখক। শিশু কিশোরদের জন্যেও লিখে থাকেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে কাব্যগ্রন্থ অদৃশ্য বাতিঘর (২০০৬), দর্শনের বই চার্বাকের খোঁজে ভারতীয় দর্শন (২০১৫)।

রামকুমার মুখোপাধ্যায় গল্পকার, ঔপন্যাসিক। বর্তমানে বিশ্বভারতী প্রকাশনা সংস্থার পরিচালক। সাহিত্যকর্মের জন্য আনন্দ পুরস্কার পেয়েছেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ছোটোগল্প সংকলন মাদলে নতুন বোল (১৯৮৪); উপন্যাস ধনপতির সিংহল যাত্রা (২০১০)।

রুবাইয়াৎ আহমেদ লেখক, নাট্যকার ও নাট্যনির্দেশক। তরুণ লেখক হিসেবে একাধিক সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে নাটক বর্ণদূত (২০০৮), উপন্যাস একজন সাব-এডিটরের কতিপয় ছেঁড়াখোঁড়া দিন (২০১৬)।

লাবণী জঙ্গী কলকাতার সেন্টার ফর স্টাডিজ ইন সোসাল সায়েন্স-এ সম্প্রতি ‘পশ্চিমবঙ্গের সমকালীন শ্রমিক পরিযায়ন বিষয়ে এম. ফিল গবেষণা সন্দর্ভ সমাপ্ত করেছেন।

শহীদুল জহির (১৯৫৩-২০০৮) বাংলাদেশের প্রয়াত ঔপন্যাসিক, গল্পকার। অঙ্গুলিমেয় রচনায় তিনি বাংলা সাহিত্যে তাঁর আসন স্থায়ী করে গেছেন। মাত্র তিনটি গল্পগ্রন্থ ও চারটি উপন্যাসের রচয়িতা জহির পেশাগত জীবনে বাংলাদেশ সরকারের একজন ঊধ্বর্তন আমলা ছিলেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে উপন্যাস মুখের দিকে দেখি (২০০৬); গল্পগ্রন্থ ডলু নদীর হাওয়া ও অন্যান্য গল্প (২০০৪)।

শামীম হোসেন কবি। তরুণ লেখক হিসাবে একাধিক পুরস্কার পেয়েছেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে কাব্যগ্রন্থ বরেন্দ্র প্রান্তরে বসন্ত নামে (২০০৭), ধানের ধাত্রী (২০১৫)।

শিকোয়া নাজনীন গল্পকার, কলাতাত্ত্বিক। ঢাকা ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিল্পকলার ইতিহাস পড়িয়েছেন। বর্তমানে কানাডার ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায় শিল্পকলার ইতিহাস নিয়ে গবেষণা করছেন। প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে নেফারতিতি ভেনাসের শিল্পকথা (২০০১); নভেরা শিল্পের রহস্যমানবী (২০২১)।

শিশির ভট্টাচার্য্য ভাষাবিজ্ঞানী। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক। ভাষা ও ব্যাকরণ ছাড়াও নানা বিষয়ে প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে সঞ্জননী ব্যাকরণ (১৯৯৮); বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস: আদিপর্ব (২০১৮)।

শিহাব শাহরিয়ার কবি। বাংলা জর্নালের সম্পাদনা পর্ষদের সদস্য। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে গবেষণাগ্রন্থ বাংলাদেশের পুতুলনাচ (১৯৯৭), কাব্যগ্রন্থ নির্বাচিত কবিতা (২০১১)।

সন্দীপন সেন কলকাতার আনন্দমোহন কলেজে ইংরেজি সাহিত্যের অধ্যাপক। তাঁর চর্চার বিষয়বস্তু রবীন্দ্রনাথ ও সমকালীন বাংলা। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে রাজনীতির রুদ্ধ দ্বার ও রবীন্দ্রনাথ (২০১৫); রবীন্দ্রনাথ ও ইংরেজ শাসন : কালান্তরের বৃত্তান্ত (২০১৯)।

সম্প্রীতি মুখার্জি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের নারীবিদ্যা বিভাগের স্নাতকোত্তর পর্বের শিক্ষার্থী। বাম রাজনৈতিক দলের একজন সক্রিয় সদস্য হিসেবে চলমান সামাজিক আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত।

সহুল আহমদ বাংলা জর্নালের বর্তমান সংখ্যার অন্যতম অতিথি সম্পাদক। তাঁর আগ্রহের বিষয় মুক্তিযুদ্ধ, ইতিহাস ও রাজনীতি। প্রকাশিত গ্রন্থ মুক্তিযুদ্ধে ধর্মের অপব্যবহার (২০১৯)। সারোয়ার তুষারের সঙ্গে যৌথ সম্পাদনা করেছেন সময়ের ব্যবচ্ছেদ (২০১৯)।

সাদ কামালী গল্পকার, প্রাবন্ধিক ও ঔপন্যাসিক। প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে গল্পগ্রন্থ অবশেষে নিঃশব্দ অন্তিমে (১৯৯২); রবীন্দ্রবিষয়ক প্রবন্ধগ্রন্থ আলাপচারী ইন্দিরাদেবী (২০১৮)।

সাদিক সত্যাপন কবি। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ ওঁ রুত (২০১৯)।

সারাহ্‌ নাফিসা সাহিদ স্বেচ্ছানিযুক্ত লেখক। বাংলাদেশের ডেইলি স্টার পত্রিকার সপ্তাহান্তের সাময়িকীতে চলচ্চিত্র, চারুকলা ও রাজনীতি বিষয়ে লিখেছেন। তাঁর লেখা Hyperallergic এবং Wear Your Voice সাময়িকীতেও বেরিয়েছে।

সুচেতনা চট্টোপাধ্যায় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাসের অধ্যাপক এবং মার্কসীয় বিদ্যাচর্চা কেন্দ্রের যুগ্ম সমন্বয়কারী। তাঁর গবেষণার বিষয় সাম্যবাদ ও শহরের ইতিহাস। তাঁর প্রকাশিত গবেষণামূলক একাধিক প্রবন্ধ ছাড়াও রয়েছে গ্রন্থ অ্যান আর্লি কমিউনিস্ট: মুজফফর আহমদ ইন ক্যালকাটা ১৯১৩-১৯২৯ (২০১১); ভয়েসেস অব কোমগাটা মারু: ইম্পেরিয়াল সার্ভেইলেন্স অ্যান্ড ওয়ার্কার্স ফ্রম পাঞ্জাব ইন বেঙ্গল (২০১৮)।

সুজয় ঘোষ পশ্চিমবঙ্গের উলুবেড়িয়া মহাবিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অধ্যাপক। ডেভেলপমেন্ট পলিসি রিভিয়ু, ভলিউম ৩৪ (৪, ২০১৬)-এ প্রকাশিত তাঁর সাম্প্রতিক নিবন্ধ; ডেমোক্র্যাসি অ্যান্ড হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট : রিসেন্ট লেজিসলেশন ইন ইন্ডিয়া।

সুধীর দত্ত কবি। সত্তর দশক থেকে কবিতায় খ্যাতি। বর্তমানে এই সময় কাগজের সঙ্গে যুক্ত। প্রকাশিত একাধিক কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ব্যাবেল টাওয়ারের চূড়া; দাহপুঁথি, হ্রেষা ও ক্ষুরধ্বনি। তার তাঁবু মই ও শ্রেষ্ঠ কবিতাগুচ্ছ কাব্যগ্রন্থের জন্য আনন্দ পুরস্কার পেয়েছেন।

সুমন্ত বন্দ্যোপাধ্যায় ঊনবিংশ শতাব্দীর বাংলার সামাজিক ইতিহাস বিষয়ক গবেষণা এবং সাম্প্রতিক রাজনীতি নিয়ে ভারত ও বিভিন্ন দেশের জর্নালে লিখে থাকেন। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ইন দ্য ওয়েক অব নক্সালবারি (১৯৮০); মেময়ার্স অব্‌ রোডস: ক্যালকাটা ফ্রম কলোনিয়াল আর্বানাইজেশন টু গ্লোবাল মর্ডানাইজেশন (২০১৬)।

সৈয়দ নিজার পেশায় অধ্যাপক। বর্তমানে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতা করছেন। বিউপনিবেশায়িত জ্ঞানকাণ্ড নির্মাণ তার অন্যতম দার্শনিক প্রকল্প। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ভারতশিল্পের উপনিবেশায়ন ও সুলতানের বিউপনিবেশায়ন ভাবনা (২০১৭); বিশ্ববিদ্যালয় উদ্ভব, বিকাশ ও বিউপনিবেশায়ন (২০১৮)।

সোহাগ পারভেজ কবি ও কথাসাহিত্যিক। পেশায় পুর প্রকৌশলী। বিভিন্ন লিটল ম্যাগাজিন, সাহিত্য সাময়িকী এবং ওয়েবপোর্টালে গল্প, কবিতা লেখেন।

স্বপ্নময় চক্রবর্তী গল্পকার ঔপন্যাসিক। সাহিত্যকর্মের জন্য রবীন্দ্র, বঙ্কিম, মানিক, তারাশঙ্কর এবং আনন্দসহ পেয়েছেন বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদের পুরস্কার। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ছোটোগল্প সংকলন ভূমিসূত্র (১৯৮২), উপন্যাস হলদে গোলাপ (২০১৪)।

স্বপ্না সেন শিল্পী, পুতুল-নাট্যবিদ। চারুকলায় স্নাতকোত্তর সনদলাভের পর দেশীয় ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় পুতুল তৈরি ও পুতুল-নাটক নিয়ে মনোনিবেশ করেন। সেই সুত্রে ফ্রান্স, সোভিয়েত ইউনিয়নে প্রদর্শনী এবং যুক্তরাষ্ট্র সফর। স্বদেশে ও বিদেশে তার শিল্পকর্মের একক ও দলগত একাধিক প্রদর্শনী হয়েছে।

হামীম কামরুল হক লেখক, অনুবাদক। বর্তমানে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে তুলনামূলক সাহিত্যের অধ্যাপক। তাঁর প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে সাহিত্য সমালোচনা মৃত্যুক্ষুধা: গতিপ্রকৃতি ও পাঠ বিবেচনা (২০০০); গল্পগ্রন্থ দীর্ঘশ্বাসের সমান ( ২০২০)।

হাসান রোবায়েত কবি। তাঁর প্রকাশিত একাধিক কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ঘুমন্ত মার্কারি ফুলে (২০১৬), এমন ঘনঘোর ফ্যাসিবাদে (২০১৮)।